ঢাকা, সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

ইনিই বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী পুলিশ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:২৩, ২০ নভেম্বর ২০২২  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

খাকি পোশাকে হাতে হাতকড়া এবং লাঠি- এমন চেহারা চোখের সামনে ভেসে উঠলে সম্মানের সঙ্গে সঙ্গে মনের কোথাও ভয়ের উদ্রেকও হয়। পুলিশকে এড়িয়ে চলার স্বভাবও থাকে অনেকের।

কিন্তু কলোম্বিয়ার মেডেলিন এলাকার কাহিনীটা একটু অন্য রকম। সামাজিকমাধ্যমে যে অ্যাকাউন্ট রয়েছে তার, তাতে পোস্ট করা সমস্ত ছবি এবং ভিডিওতে মন্তব্যের বন্যা বইয়ে দিচ্ছেন কলোম্বিয়ার বাসিন্দারা। তারা সবাই নাকি এই সুন্দরী পুলিশের রূপে মুগ্ধ।

তার নাম ডায়না রামিরেজ। কলোম্বিয়ার মেডেলিন এলাকার বাসিন্দা তিনি। পেশায় একজন পুলিশ কর্মকর্তা তিনি। মেডেলিনের রাস্তাঘাটে প্রায়ই তাকে পুলিশি উর্দি পরে দেখা যায়। যাতায়াতের পথেই ডায়নাকে লক্ষ করেছিলেন সেখানকার বাসিন্দারা।

পরে তাকে খুঁজে পান সামাজিকমাধ্যমেও। কিন্তু ডায়নার ইনস্টাগ্রাম দেখে স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিলেন সকলে। কারণ পেশাগত কারণে তার যে কঠিন জীবনশৈলী মেনে দিন কাটানো উচিত বলে ভেবেছিলেন, তার একদম বিপরীত পথে চলেন ডায়না।

তার ইনস্টাগ্রাম ভর্তি ছবি এবং ভিডিও। কখনও তার পরনে উর্দি, কখনও বা অন্য পোশাক। স্থানীয় একটি রেডিও চ্যানেলে কাজও করেন তিনি। তার ভিডিও পোস্টও করেন নিজের ইনস্টাগ্রামে।

সম্প্রতি একটি পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি। পুলিশে কর্মরত হয়েও তিনি অনলাইন মাধ্যমে যে ধরনের বিষয়বস্তুর উপর কাজ করে দর্শকের কাছে পৌঁছাচ্ছেন, সেই কারণেই এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে তাকে।

সংবাদ সংস্থা সূত্রের খবর, এক সাক্ষাৎকারে ডায়না জানিয়েছেন, এই পেশা তাকে অনেক কিছু দিয়েছে। অনেক কিছু শিখতে পেরেছেন তিনি।

ডায়না জানান, অনেকে তাকে এই পেশা ছেড়ে মডেলিং করতে বলেছিলেন। তিনি এত সুন্দর দেখতে, তাকে নাকি পুলিশের পেশায় মানায় না, ধারণা অনেকের।

মডেলিং পেশায় যাবেন কি না, এই প্রসঙ্গে ডায়নাকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, এই পেশা ছেড়ে যাওয়ার কোনও রকম চিন্তাভাবনা করছেন না তিনি।

তিনি বলেন, আমাকে যদি জিজ্ঞাসা করা হয়, পরের জন্মে আমি কোন পেশার সঙ্গে যুক্ত হতে চাই, আমি আবার পুলিশ হতেই চাইব।

তিনি আরও বলেন, এই পেশায় থাকাকালীন আমি যা যা শিখেছি, তা আমাকে নারী হিসাবেও পূর্ণতা দিয়েছে। সামাজিকমাধ্যম এমন একটি জায়গা, যেখানে সারা বিশ্বের মানুষ নিজেদের কাজের মাধ্যমে অন্যদের প্রভাবিত করতে পারেন বলে মনে করেন ডায়না।

ইতোমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে তার অনুরাগীর সংখ্যা বেড়ে চার লাখের গণ্ডি পার করেছে। মেডেলিনের বাসিন্দা ছাড়াও আরও অনেকে ডায়নাকে দেখে অবাক হয়েছেন। অধিকাংশের মতে, বিশ্বের সবচেয়ে ‘সুন্দরী’ পুলিশ হলেন ডায়না।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়