ঢাকা, বুধবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ৯ ১৪৩০

এবার কুকি-চিনের সঙ্গে নুরের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ফাঁস

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:২২, ৬ জুলাই ২০২৩  

এবার কুকি-চিনের সঙ্গে নুরের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ফাঁস

এবার কুকি-চিনের সঙ্গে নুরের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ফাঁস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়ে পাহাড় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে কুকি-চিন ন্যাশনাল আর্মি। দেশের পার্বত্য ভূ-খণ্ডে পৃথক রাজ্য গড়ার প্রত্যয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে আবারও নতুন ষড়যন্ত্র শুরু হয়ে গেছে।

রাঙামাটি ও বান্দরবান জেলার শান্তিপ্রিয় হিসেবে পরিচিত ক্ষুদ্র ৬টি নৃ-গোষ্ঠী বম, পাংখুয়া, লুসাই, খুমি, ম্রো ও খিয়াং-এর সমন্বয়ে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) আত্মপ্রকাশ। দেশের এক-দশমাংশ জায়গাজুড়ে দীর্ঘদিন ধরে খুন, গুম, অপহরণ, ধর্ষণ ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধ করে যাচ্ছে এই সশস্ত্র গোষ্ঠী। আর এই সন্ত্রাসী বাহিনীর সাথে গোপনে যোগাযোগের প্রমাণ পাওয়া গেছে গণঅধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে। এই বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে মিশে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র করছে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুর।

কুকি-চিনের একজন সদস্যের সাথে নুরের কথোপকথেনর স্ক্রিনশট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, যে মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে কুচি-চিনের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে সেটি নুরুল হক নুরের। এ বিষয়ে তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বক্তব্য প্রদানে অস্বীকৃতি জানায়। তবে নিশ্চিত হওয়া গেছে সেই নম্বরটি এখনো ব্যবহার করছে নুর।

কথোপকথনে দেখা যায়, নুর বিচ্ছিন্নতাবাদীদের জন্য কূটনৈতিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

এর আগে ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের সদস্য মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে বৈঠকের বিষয়টি নুর অস্বীকার করে আসছিলো। কিন্তু সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মেন্দি এন সাফাদি দৈনিক প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেন নুরের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ হয়েছে। যার মধ্য দিয়ে প্রমাণ হয় নুর মিথ্যা বলেছিলো। সাফাদির সঙ্গে তোলা ছবিটিও এডিট করা বলে দাবি করেছিলো নুর। সেটাও ফ্যাক্ট চেকের অনুসন্ধান এবং গবেষণায় প্রমাণ হয়- ছবিটি এডিট করা নয়। এখানেও নুরের বক্তব্য মিথ্যা প্রমাণ হয়।

আর এখন ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা থেকে পাওয়া টাকার ভাগ না পেয়ে রেজা কিবরিয়া সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সব কিছু ফাঁস করে দেন।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, রাজনীতিতে পরিচিতি পেলেও নুর লোভ সংবরণ করতে পারেনি। তাই দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন। যে দেশের সঙ্গে আমাদের কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই, যে ইসরায়েল ফিলিস্তিনির মুসলমানদের নির্বিচারে হত্যা করছে, সেই দেশের গোয়েন্দা সদস্যের সঙ্গে বৈঠক দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই নয়। আর কুকি-চিনের সঙ্গে নুরের যোগসাজশ একটি ভয়ঙ্কর বিষয়। তাই অতিসত্ত্বর তাকে আইনের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিত।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়