ঢাকা, বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৬ ১৪২৮

চাল আমদানিতে শুল্ক কমিয়েছে সরকার

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:১৭, ১৩ আগস্ট ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

করোনার মধ্যে দেশের প্রধান খাদ্যপণ্য চালের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে আবার আমদানি শুল্ক কমিয়েছে সরকার।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের এক প্রজ্ঞাপনে, চালের মোট আমদানি শুল্ক ৬২ দশমিক ৫০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ করা হয়েছে।আগামী অক্টোবরের ৩০ তারিখ পর্যন্ত হ্রাসকৃত শুল্কে চাল আমদানি করা যাবে।

সব মিলিয়ে বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমদানিতে ৩৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ শুল্ক কমিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। যার মধ্যে কাস্টম ডিউটি বা আমদানি শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১৫ শতাংশ করা হয়েছে। অর্থাৎ শুল্ক ১০ শতাংশ হ্রাস করা হয়েছে। পাশাপাশি বিদ্যমান রেগুলেটরি ডিউটি বা আবগারি শুল্ক ২৫ শতাংশ প্রত্যাহার করা হয়েছে। আর অন্যান্য ১ দশমিক ৭৫ শতাংশ করসহ মোট ৩৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ শুল্ক কমিয়েছে রাজস্ব বোর্ড

সিদ্ধ চাল ও আতপ চালের ক্ষেত্রে আরোপিত আমদানি শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ পরিমাণ এবং সমুদয় রেগুলেটরি ডিউটি শর্ত সাপেক্ষে অব্যাহতি দেয়ার কথা বলা হয়েছে প্রজ্ঞাপনে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, এর আওতায় রেয়াতি হারে চাল আমদানির আগে প্রতি চালানের জন্য খাদ্য মন্ত্রণালয়ের মনোনীত যুগ্মসচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তার কাছ লিখিত অনুমতি নিতে হবে।

এর আগে গত ৭ জানুয়ারি এক প্রজ্ঞাপনে একইভাবে চালের আমদানি শুল্ক কমায় সরকার। ওই সময় ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত কম শুল্কে আমদানির সুযোগ দেয়া হয়। মে থেকে আবার আগের মতো ৬২ দশমিক ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ হয় চাল আমদানিতে। সেই সময়ে বেসরকারি আমদানিকারকরা আর চাল আমদানি করেননি।

ভোক্তা ও কৃষকের স্বার্থ রক্ষায় সরকার চাল আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। এ মুহূর্তে সরকারের চালের মজুত ১৭ লাখ মেট্রিক টন। চলমান বোরো সংগ্রহ অভিযানে ইতোমধ্যে সাড়ে আট লাখ টন চাল সংগ্রহ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়