ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ৪ ১৪২৮

টিকা না নিলে ওমিক্রন ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে: ডব্লিউএইচও

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:১৪, ১৩ জানুয়ারি ২০২২  

ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস

ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস

যারা এখনও করোনা টিকার ডোজ নেননি, তাদের জন্য ওমিক্রন ভাইরাসটি ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস।

জেনেভায় ডব্লিউএইচওর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গেব্রিয়েসুস বলেন, ‘ওমিক্রন যদিও ডেল্টার চেয়ে কম প্রাণঘাতী, কিন্তু যারা এখন পর্যন্ত করোনা টিকার কোনো ডোজ নেননি, তাদের জন্য এই ভাইরাসটি খুবই বিপজ্জনক।’

২০২১ সালের ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হয় ওমিক্রনে। তার পর থেকে অকল্পনীয় দ্রুতগতিতে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়তে থাকে এই ভাইরাসটি। ডব্লিউএইচওর তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৩০টিরও বেশি দেশে শনাক্ত হয়েছে ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগী।

আন্তর্জাতিক জীবাণুবিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সার্স-কোভ-২ বা মূল করোনাভাইরাসের তুলনায় ওমিক্রনের সংক্রমণ ক্ষমতা ৭০ গুণ বেশি। বর্তমানে করোনাভাইরাসের রূপান্তরিত ধরণগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সংক্রামক ধরনের স্বীকৃতি পেয়েছে এই ভাইরাসটি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ‘উদ্বেগজনক ধরনের’ তালিকায় স্থান পাওয়া ওমিক্রনের প্রভাবে পৃথিবীজুড়েই বাড়ছে করোনার দৈনিক সংক্রমণ। ইউরোপের বিভিন্ন দেশ ও যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন লক্ষাধিক রোগী শনাক্ত হচ্ছেন করোনা পজিটিভ হিসেবে।

আন্তর্জাতিক জীবাণুবিশেষজ্ঞরা অবশ্য বলেছেন, অতি উচ্চ মাত্রার সংক্রামক ভাইরাস হলেও করোনার অতি সংক্রামক ধরন ডেল্টাসহ অন্যান্য রূপান্তরিত ধরন এবং মূল করোনাভাইরাসের তুলনায় কম প্রাণঘাতী। তবে ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক বলেছেন, ওমিক্রনে আক্রান্তদের মধ্যে মূলত মৃত্যুর শঙ্কামুক্ত তারাই, যারা টিকার দুই ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়