ঢাকা, শনিবার   ১৩ আগস্ট ২০২২ ||  শ্রাবণ ২৮ ১৪২৯

নখের রোগ অনাইকোমাইকোসিস

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:৫৯, ৪ আগস্ট ২০২২  

নখের রোগ অনাইকোমাইকোসিস

নখের রোগ অনাইকোমাইকোসিস

নখের অনেক নিজস্ব রোগ হয়। প্রথমেই যেটা হয়, খুব প্রচলিত অনাইকোমাইকোসিস। এটি ফাঙ্গাস দিয়ে হয়। 

অনাইকোমাইকোসিস রোগের প্রথমে সাধারণত এর কোনো লক্ষণ থাকে না। তারপরে নখের রং বদলে যায়। রংটা একটু হলুদাভ হয়ে যায়। নখ পুরো হয়ে যায়। থাক থাক ভাব বা ফ্লেক আসতে পারে। পরবর্তীকালে যখন লক্ষণ প্রকাশ হয়, তখন রোগীর দৈনন্দিন শারীরিক কাজ ব্যাহত করে। অনাইকোমাইকোসিস যেহেতু এটা ছত্রাক, তাই টিপিক্যাল অ্যান্টিফাঙ্গাল ব্যবহার করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা। সেটা লোশন বা ক্রিম হতে পারে। পাশাপাশি মুখের অ্যান্টিফাঙ্গাল ওষুধ খেতে হয়। এই ওষুধ সাধারণত তিন মাস খেতে হয়। এক বছর পর্যন্ত ওষুধ সেবন করতে হতে পারে। সে জন্য ধৈর্য হারিয়ে মাঝপথে ওষুধ সেবন বন্ধ করা যাবে না।

আক্রান্ত জায়গা বেশিক্ষণ ভেজা রাখা যাবে না। এমনকি খুঁটাখুঁটিও করা যাবে না। যারা গৃহিণী, খুব বেশি পানির কাজ করছে, থালা-বাসন মাজছে, তাদের নখের আরেকটি প্রচলিত সমস্যা হলো প্যারোনাইকিয়া। এটা খুব ব্যথাযুক্ত। এই সমস্যা ছত্রাকের কারণেও হতে পারে। তখন দীর্ঘমেয়াদি অ্যান্টিফাঙ্গাল চিকিৎসা প্রয়োজন হতে পারে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়