ঢাকা, সোমবার   ২৩ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৯

সরকারি টেক্সটাইল কলেজে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:০৮, ২৬ মে ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

দেশের সমৃদ্ধ একটি খাতের নাম বস্ত্রখাত। এ খাত নিয়ে পড়াশোনার সুযোগ আছে দেশেই। রয়েছে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়। তাই ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় (বুটেক্স) অধিভুক্ত সরকারি টেক্সটাইল কলেজে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানা যাবে dot.gov.bd ওয়েবসাইটে।  

ভর্তি পরীক্ষা সম্পর্কে খুটিনাটি: ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ১ জুন থেকে শুরু হয়ে চলবে ৮ জুলাই পর্যন্ত। ভর্তি পরীক্ষা হবে ১৭ জুলাই। ফলাফল প্রকাশ ১৯ জুলাই। আবেদন ফি: ১০০০/- টাকা

বুটেক্স অধিভুক্ত যেসব কলেজ: বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুটেক্স) অধীনে দেশের ৭টি পাবলিক টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ থেকে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি দেয়া হয়।

১। শেখ কামাল টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, ঝিনাইদহ

২। নোয়াখালী টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

৩। চট্টগ্রাম টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

৪। পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

৫। বরিশাল শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

৬। ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, পীরগঞ্জ, রংপুর।

৭। বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, টাঙ্গাইল।

 
বিভাগ ও আসন সংখ্যা: চারটি বিষয়ে প্রতি কলেজে আসন সংখ্যা ১২০। সাত কলেজে আসনসংখ্যা ৮৪০। 

১. ওয়েট প্রসেস ইঞ্জিনিয়ারিং (৩০)  
২. ফেব্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং (৩০)
৩. অ্যাপারেল ইঞ্জিনিয়ারিং (৩০)
৪. ইয়ার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং (৩০)
 
আবেদনের যোগ্যতা: প্রার্থীকে বাংলাদেশের যে কোন শিক্ষা বোর্ড থেকে ২০১৭ অথবা ২০১৮ সালে এসএসসি বিজ্ঞান/ সমমান পরীক্ষায় অথবা বিদেশি শিক্ষা বোর্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় এবং ২০১৯ অথবা ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত এইচএসসি বিজ্ঞান কিংবা সমমানের পরীক্ষায় পাস করতে হবে। এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে প্রত্যেকটিতে ন্যূনতম ৩.৫০ থাকতে হবে। এইচএসসি পরীক্ষায় গণিত, পদার্থ, রসায়ন ও ইংরেজিতে মোট পয়েন্ট কমপক্ষে ১৫.০০ থাকতে হবে এবং উল্লেখিত বিষয়সমূহে আলাদাভাবে ন্যূনতম ৩.০০ গ্রেড পয়েন্ট থাকতে হবে।

মানবন্টন: ভর্তি পরীক্ষা ২০২০ সালে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডসমূহ কর্তৃক পরিচালিত উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার সিলেবাস অনুযায়ী MCQ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। প্রশ্নপত্রে ১০০টি প্রশ্ন থাকবে, প্রতিটি প্রশ্নের নম্বর হবে ২, পরীক্ষার সময় হবে ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.৫০ নম্বর কাটা যাবে।

পরীক্ষার বিষয় ও নম্বর:

১. গণিত ৬০
২. পদার্থ ৬০
৩. রসায়ন ৬০
৪. ইংরেজি ২০

মোট ২০০

মনে রাখা জরুরি: পরীক্ষার্থীদের উত্তরপত্রে (OMR শিট) কালো কালির বলপেন দিয়ে পূরণ করতে হবে। ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বরসহ সংশ্লিষ্ট ঘরসমূহ ইংরেজিতে পূরণ করতে হবে। পেন্সিল ব্যবহার করলে উত্তরপত্র বাতিল হবে। ভর্তি পরীক্ষার সময় কোনো ধরনের ক্যালকুলেটর, ইলেকট্রনিক সিম, ধরনের ঘড়ি, ডিভাইস যুক্ত কলম, মোবাইল বা অন্যান্য উপকরণ সঙ্গে রাখা ও ব্যবহার করা যাবে না।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়