ঢাকা, বুধবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

চট্টগ্রামের অর্ধশতাধিক গ্রামে শনিবার ঈদুল আজহা

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৯:২৩, ৯ জুলাই ২০২২  

মির্জাখীল দরবার শরীফ

মির্জাখীল দরবার শরীফ

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে শনিবার চট্টগ্রামের অর্ধশতাধিক গ্রামে উদযাপিত হবে ঈদুল আজহা। এদিন সকাল সাড়ে ৯টায় সাতকানিয়া উপজেলার মির্জাখীল দরবার শরীফের মসজিদে ঈদুল আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এতে ইমামতি করবেন দরবার শরীফের পীর হযরত মাওলানা মোহাম্মদ আরেফুল হাই এর বড় ছেলে মাওলানা ড. মোহাম্মদ মছউদুর রহমান।

ড. মোহাম্মদ মছউদুর রহমান বলেন, চার মাযহাবের সমন্বিত ‘আল ফিকাহ আলা মাযাহিবিল আরবায়া’ গ্রন্থ অনুযায়ী পৃথিবীর কোথাও চাঁদ দেখা গেলে সব স্থানেই ঈদ উদযাপনের বিধি রয়েছে। সে হিসেবে মির্জাখীল দরবার শরিফের অনুসারীরা ২শ’ বছর ধরে আগাম ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা উদযাপন করে আসছে। এছাড়া চন্দনাইশ উপজেলার জাহাঁগিরিয়া মমতাজিয়া দরবারের অনুসারীরাও একইভাবে উদযাপন করে আসছে। 

তিনি বলেন, বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিকোণ থেকে চাঁদের অবস্থান এবং হজ পালনের খবর সচিত্র দেখে, তথা এ বছর শায়খ ড. মুহাম্মাদ বিন আব্দুল করিম আল-ইসসা কতৃর্ক প্রদত্ত হজের খুতবা সরাসরি পবিত্র আরাফাতের মসজিদে নামিরা থেকে দেখে-শুনেই শনিবার ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।

মির্জাখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক ও দরবার শরীফের মুরিদ বজলুল করিম চৌধুরী বলেন, ঈদুল আজহার নামাজের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে থাকা দরবার শরীফের মুরিদরা ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের জন্য দরবার শরীফে আসবেন। এছাড়া যেসব এলাকায় অধিক সংখ্যক মুরিদ রয়েছে, তারা নিজ নিজ এলাকায় নামাজ আদায় করবেন।

তিনি আরো বলেন, আমাদের পুরো গ্রামের মানুষ শনিবার ঈদুল আজহা উদযাপন করবে। মির্জাখীলসহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলার অন্তত অর্ধশতাধিক গ্রামে থাকা দরবার শরীফের মুরিদরাও একই সময়ে ঈদুল আজহা উদযাপন করবেন। মির্জাখীল দরবার শরীফের অনুসারীরা দুই শত বছরের অধিক সময় ধরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদুল আজহা ও ঈদুল ফিতর উদযাপন করে আসছে।

চট্টগ্রামের যেসব গ্রামে শনিবার ঈদুল আজহা উদযাপন হবে সেগুলো হলো- সাতকানিয়া উপজেলার মীর্জাখীল, চরতি, সুইপুর, গাটিয়াডাঙ্গা ও কেরাণীহাট, পটিয়া উপজেলার কালারপোল, হাইদগাঁও, মল্লপাড়া ও বাহুলী, চন্দনাইশ উপজেলার কাঞ্চননগর, গাছবাড়িয়া, হারালা, বাইনজুড়ী, কানাইমাদারি ও ঢেমশা, আনোয়ারা উপজেলার তৈলারদ্বীপ, বরুমছড়া, বারখাইন, সরকারহাট, গহিরা ও বারশত, বোয়ালখালী উপজেলার চরণদ্বীপ, খরণদ্বীপ, পূর্ব গোমদণ্ডী ও পশ্চিম কধুরখীল, বাঁশখালী উপজেলার কালীপুর, চাম্বল, শেখেরখীল, পুঁইছড়ি ও ডোমার এবং লোহাগাড়া উপজেলার ধর্মপুর ও কলাউজান।

এছাড়াও বোয়ালখালী, হাটহাজারী, সন্দ্বীপ, ফটিকছড়ি, আলীকদম, নাইক্ষ্যংছড়ি, কক্সবাজার, টেকনাফ, মহেশখালী, কুতুবদিয়ার বেশ কয়েকটি গ্রামে মির্জাখীল দরবার শরীফের অনুসারী রয়েছেন। তারাও শনিবার ঈদুল আজহা উদযাপন করবেন।

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়