ঢাকা, শনিবার   ২৫ জুন ২০২২ ||  আষাঢ় ১২ ১৪২৯

বেরোবির ১৯ শিক্ষক-শিক্ষার্থী বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায়

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:২৭, ২৬ এপ্রিল ২০২২  

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) ১৬ জন শিক্ষক এবং তিনজন শিক্ষার্থী।  

এ তালিকায় বিশ্বের ২১৬টি দেশের ১৫ হাজার ৪২৮টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯ লাখ ৫ হাজার ৫৭৯ জন এবং দেশের ১৫৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ হাজার ৭৭২ জন গবেষক স্থান পেয়েছেন।

এবারই প্রথম বেরোবি থেকে ৩ শিক্ষার্থী স্থান পেয়েছেন এ বিশ্বসেরা গবেষকের তালিকায়। শিক্ষকরা বলছেন, গবেষণায় শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বাড়াতে এ ৩ শিক্ষার্থী সবার অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন।  

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক খ্যাতনামা সংস্থা অ্যালপার ডজার (এডি) সায়েন্টিফিক ইনডেক্স কর্তৃক ২০২২ সালের বিশ্বসেরা গবেষকদের প্রকাশিত একটি তালিকা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

তালিকায় স্থান পাওয়া শিক্ষকরা হলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আবু রেজা মো. তৌফিকুল ইসলাম ও সহকারী অধ্যাপক মো. আব্দুর রাকিব, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. কামরুজ্জামান, সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. আল হেলাল ও সহকারী অধ্যাপক ঈশ্মিতা তাসনিম, গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক একেএম কাজী সাজ্জাদ হোসেন, পরিসংখ্যান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. শাহজামান ও সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. সিদ্দিকুর রহমান, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মো. ফেরদৌস রহমান, রসায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাদ্দাম হোসেন ও প্রভাষক মোস্তফা কাইয়ুম শারাফাত, ফাইন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. নূর আলম সিদ্দিক, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আপেল মাহমুদ, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. জসিম উদ্দিন, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক সহকারী অধ্যাপক ড. সোহেলা মুস্তারী ও মার্কেটিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাজেদুল হক।  

তালিকায় স্থান পাওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের রুকাইয়া সালাম, এইচএম তৌহিদুল ইসলাম ও মো. হাসানুজ্জামান।

অ্যালপার ডজার (এডি) সায়েন্টিফিক ইনডেক্স তৈরি করেছেন দুই অধ্যাপক মুরাত আলপার এবং সিহান ডজার। তাদের নামেই এ নাম রাখা হয়েছে। ওই দুই গবেষকের দাবি, এ তালিকায় বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী-গবেষক ও অধ্যাপকদের পুরো কাজ এবং শেষ পাঁচ বছরের কাজ তুলে ধরা হয়েছে। তাদের গুগল স্কলারের এইচ-সূচক (এইচ-ইনডেক্স), আই-১০ ইনডেক্স, সাইটেশনের তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাংকিংটি প্রকাশ করা হয়েছে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়