ঢাকা, রোববার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৯

নতুন কিছু ফিচারে আরো চমকপ্রদ হচ্ছে গুগল ম্যাপস

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:১১, ২ অক্টোবর ২০২২  

নতুন কিছু ফিচারে আরো চমকপ্রদ হচ্ছে গুগল ম্যাপস

নতুন কিছু ফিচারে আরো চমকপ্রদ হচ্ছে গুগল ম্যাপস

গুগল ম্যাপসের মাধ্যমে ঘরে বসে যে কেউ ঘুরে আসতে পারেন পৃথিবীর এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত পর্যন্ত। কোথাও যাওয়ার রুট, অপরিচিত এলাকা, ঐতিহাসিক ল্যান্ডস্কেপসহ একাধিক তথ্যের আঁতুরঘর গুগল ম্যাপস। তবে ধীরে ধীরে এই অ্যাপস নানা ফিচারের মাধ্যমে আরো বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে।

ম্যাপকে আরো সহজ এবং আগের তুলনায় সমৃদ্ধ করতে অ্যাপটিতে বেশ কিছু নতুন ফিচার যোগ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে গুগল। এরই মধ্যে গুগল ম্যাপে ইমারসিভ ভিউ, নেইবারহুড ভাইব এবং সার্চ উইথ লাইভ ভিউ নামের নতুন ফিচার যোগ হতে যাচ্ছে।

সার্চ উইদ লাইভ ভিউ

ডিভাইসের ক্যামেরা ব্যবহার করে দোকান, এটিএম এবং রেস্টুরেন্টের মতো প্রয়োজনীয় জায়গাগুলো খুঁজে বের করা যাবে। যেমন কোন অপরিচিত স্থানে নিকটস্থ এটিএম বুথ খোঁজে পেতে চাইলে হাতের ক্যামেরাটি ওপরে তুলতে হবে এবং এটিএম খোঁজতে অনতিবিলম্বে সার্চ করতে হবে। কয়েকমাসের মধ্যেই লন্ডন, নিউ ইয়র্ক,প্যারিস,সান ফ্রান্সিসকো এবং টোকিওতে অ্যানড্রয়েড এবং আইওএস এতে এই সার্চ উইথ লাইভ ভিউ ফিচারটি পাওয়া যাবে।

ইমারসিভ ভিউকোন

একটি শহর বা স্থানে ভ্রমণের আগে সে জায়গা সম্পর্কে ভালো করে জানার পাশাপাশি ভ্রমনের সামগ্রিক পরিকল্পনা করতে সাহায্য করবে ইমারসিভ ভিউ। যেমন আপনি কক্সবাজারে যাওয়ার আগে সেখানে গাড়ি পার্ক করার পর্যাপ্ত জায়গা রয়েছে কিনা, আবহাওয়া কেমন থাকবে তা দেখা যাবে। আপাতত লস এঞ্জেলস, সান ফ্রান্সিসকো এবং টোকিওর বাসিন্দারা তাদের অ্যানড্রয়েড এবং আইওএস ডিভাইসে ইমারসিভ ভিউ ফিচারটি পাবেন।

নেইবারহুড ভাইব

গুগল ম্যাপস কমিউনিটিতে থাকা ছবি এবং তথ্যাদির মাধ্যমে আশেপাশের দৃশ্য তাৎক্ষণিকভাবে দেখতে পাবেন ব্যবহাকারীরা। একটি নির্দিষ্ট জায়গায় আকর্ষণীয় স্থানগুলো সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে নেইবারহুড ভাইব ফিচারের মাধ্যমে।

ডেভেলপারদের জন্য ইকো ফ্রেন্ডলি রাউটিং

ডেভেলপারদের খুব শিগগিরই তাদের অ্যাপসে ম্যাপকে ইকো ফ্রেন্ডলি করার অপশন দেওয়া হবে। গুগল ম্যাপ ইকো ফ্রেন্ডলি রাউটিং গাড়ি চালকদেরকে গন্তব্যে যাওয়ার জন্য আরো জ্বালানী সাশ্রয়ী রুট বাছাই করার সুযোগ দিবে। এরফলে পণ্য ডেলিভারি থেকে রাইড শেয়ারিং সব ধরনের সেবাপ্রদানকারী কোম্পানিগুলো ইকো ফ্রেন্ডলি রাউটিং অ্যাপস চালাতে পারবে এবং কোন রাস্তায় চললে কতটুকো জ্বালানী সাশ্রয় হবে সে হিসাব করতে পারবে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়