ঢাকা, সোমবার   ২০ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪৩১

নেত্রকোণার বারহাট্টায় ভ্রাম্যমান বাসে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:৩১, ২০ জুলাই ২০২৩  

নেত্রকোণার বারহাট্টায় ভ্রাম্যমান বাসে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ

নেত্রকোণার বারহাট্টায় ভ্রাম্যমান বাসে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ

প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের বেকার যুবক ও যুবতীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ, স্বাবলম্বী ও আত্মকর্মী হিসাবে গড়ে তুলতে সারাদেশে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর।যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরাধীন “টেকনোলজি এমপাওয়ারমেন্ট সেন্টার অন হুইলস ফর আন্ডারপ্রিভিলেজড রুরাল ইয়ং পিপল অফবাংলাদেশ (টেকাব) শীর্ষক কারিগরি সহায়তায় নেত্রকোণার বারহাট্টায় ভ্রাম্যমান কম্পিউটার ভ্যানে ৪৪ দিনব্যাপী তিনটি ব্যাচে ৪০ জন প্রশিক্ষণার্থীকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আওতায় নেত্রকোণায় ভ্রাম্যমান কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। এসি বাসের ভেতর আসনের সামনে একটি করে রয়েছে কম্পিউটার। সেই কম্পিউটারে বসেই শিক্ষিত যুবক ও যুবতীরা নিচ্ছেন প্রশিক্ষণ। বারহাট্টা উপজেলা চত্তরেএমন দৃশ্য চোখে পড়ার মতো।

প্রধানমন্ত্রীর ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে রুপান্তর করতে গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষিত শিক্ষিত যুবক ও যুবতীদের মধ্যে নতুন চেতনা আনতেই এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

প্রশিক্ষণার্থীরা জানান, সরকার যুব উন্নয়নের উদ্যোগে গ্রামের সাধারণ যুব সমাজকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণের সুযোগ তৈরি করে দেওয়ায় তারা আনন্দিত।তাদের প্রশিক্ষণলব্দ জ্ঞান আত্মকর্মসংস্থান সৃস্টি করে নিজেরা স্বাবলম্বী হতে পারবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।

কম্পিউটার প্রশিক্ষক রাকিবুল হাসান ও সহকারী প্রশিক্ষকতরুণ চন্দ্র জানান, সরকার যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলের বেকার যুবক-যুবতীদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে। প্রশিক্ষণার্থীরা আত্মকর্মসংস্থান সৃস্টি করে স্বাবলম্বী হবে। পাশাপশি তারা ডিজিটাল বংলাদেশ গঠনে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।

উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, প্রত্যন্ত অঞ্চলের বেকার যুবক-যুবতীদের উপজেলা পর্যায়ে কম্পিউটার প্রশিক্ষণের সুযোগ না থাকলেও ভ্রাম্যমান পদ্ধতিতে বাসে বসেই কম্পিউটার প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা সরকারের একটি ব্যতিক্রম উদ্যোগ।

উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম হতে আসা ৪০ জন শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদের অত্যাধুনিক এই পদ্ধতিতে প্রতিদিন ৪টি ব্যাচে এমএস অফিস, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ইন্টারনেট আউটসাইডসহ বিভিন্ন ধরনের প্রোগ্রাম শেখানো হচ্ছে। প্রশিক্ষণ শেষে প্রশিক্ষণার্থীদের সনদপত্র দেওয়া হবে। এ সনদের মান ৬ মাসের ডিপ্লোমা কোর্সের মতো।সনদপত্রটি তারা চাকরীক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারবে। আত্মকর্মসংস্থানে যুব উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান ব্যাংক থেকে ঋণ নিতে সনদপত্র ব্যবহার করতে পারবে।

জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হারুন অর রশিদ জানান, গ্রামের শিক্ষিত বেকার যুব সমাজকে আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করার জন্য ময়মনসিংহ বিভাগের প্রত্যেক উপজেলায় পর্যায়ক্রমে৪০ জন শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদেরযুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে ভ্রাম্যমান বাসে বসেই২ মাস মেয়াদী কম্পিউটার প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।

নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া ও মোহনগঞ্জ উপজেলায় পর্যায়ক্রমে ২টি ব্যাচ প্রশিক্ষণ শেষ হয়েছে। বর্তমানে বারহাট্টা উপজেলায় প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলছে।

আরও পড়ুন
সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়